আমাদের অনেকেরই ডু-ফলো এবং নো-ফলো ব্যাকলিংক নিয়ে মতবিরোধ আছে। আমরা আমাদের নিস ওয়েবসাইট বা কোন ব্লগ সাইট লিংক বিল্ডিং (এসইও) করার মাধ্যমে ব্যাকলিংক পেয়ে থাকি কিন্তু আমরা কি জানি আমরা যে ব্যাকলিংক বিভিন্ন ওয়েবসাইট থেকে পেয়ে থাকি সেগুলো সবই ভালো? আসলে সব ব্যাকলিংকই ভালো না বা আমাদের ওয়েবসাইটের জন্য কাজে লাগেনা

সেজন্য, মানের বা গ্রহণযোগ্যতার দিক থেকে যেকোনো ওয়েবসাইটের ব্যাকলিংক কে দুই ভাগে ভাগ করা যায়- 

*** 1. ডু-ফলো ব্যাকলিংক
*** 2. নো-ফলো ব্যাকলিংক

এবার দেখি ডু-ফলো ব্যাকলিংক এবং নো-ফলো ব্যাকলিংক কি আর এগুলো কিভাবে কাজ করে

১। ডু-ফলো ব্যাকলিংক

এই শব্দটি দেখে আমরা সহজেই অনুমান করতে পারি যে ডু-ফলো ব্যাকলিংক যেকোন সাইটের জন্য ভালো।  আর এই ব্যাকলিংক টি গুগোল কিভাবে দেয় এটা জানা দরকার। আমরা যখন কোন সাইটের মধ্যে ব্যাকলিংক করার জন্য যায় এবং ওই ওয়েবসাইট ওনার আমাদের সাইটের ব্যাকলিংকটি খুব স্বাচ্ছন্দে দিয়ে থাকে এবং তখন আমরা ওই ওয়েবসাইট থেকে যে ব্যাকলিংক পেয়ে থাকি এগুলো সাধারণত ডু-ফলো ব্যাকলিংক।  অর্থাৎ, আমরা যদি আরো সহজ ভাষায় বলি তাহলে ঠিক এভাবে বলা যায়- যেকোনো ব্যাকলিংক -এর ক্ষেত্রে যখন কোন হাই-অথরিটি ওয়েবসাইট অন্য একটি সাইট কে ব্যাকলিংক দেয় তখন গুগোল অ্যালগরিদম বুঝতে পারে যে এই ব্যাকলিংক এর ক্ষেত্রে উক্ত ওয়েবসাইটের কোন অনুমতি আছে কিনা? আর যদি অনুমতি থাকে তাহলে গুগোল এইচটিএমএল কোড -এ একটি বিশেষ সংকেত দিয়ে থাকে যা তখন ওই লিংকে গুগোল পজিটিভ হিসেবে ধরে নেয় এবং ওই লিঙ্ক থেকে যে সাইট টি ব্যাকলিংক পাচ্ছে তখন সেটাকে ডুফলো ব্যাকলিংক বলে ধরা হয়-

২। নো-ফলো ব্যাকলিংক

শব্দটি শুনে প্রথমে আমরা বুঝতে পারি যে, এই ব্যাকলিংক টি যেকোনো সাইটের জন্য ভালো না। এবং এই ব্যাক লিংক থেকে আমরা কোন উপকার ও পেতে পারি না। আমরা হরহামেশাই যত্রতত্রভাবে বা নিয়ম নীতি উপেক্ষা করে একটি ওয়েবসাইটের জন্য যেখানে-সেখানে ব্যাকলিংক ক্রিয়েট করার চেষ্টা করি। কিন্তু, এটা জানিনা যে আমরা যে ওয়েবসাইটের মধ্যে আমাদের সাইটকে ব্যাকলিংক দিতে চাচ্ছি আসলেই এখানে দেওয়া যাবে কি? অর্থাৎ, ব্যাকলিংক দেওয়া যায় এমন সব সাইটকেই আমরা লিংক বিল্ডিং করে থাকি আমাদের মূল্যবান সাইট রেঙ্ক করার জন্য। ধরন-আপনি হাই-অথরিটি কোন সাইটের মধ্যে আপনার একটি নিস সাইট -এর জন্য লিংক বিল্ডিং করলেন কিন্তু, ওই অথরিটি সাইট ওনার আপনার লিংকটি ভালোভাবে নিলো না এই বিষয়টি গুগোল অ্যালগরিদম খুব সহসাই বুঝতে পারে এবং এইচটিএমএল কোডে বিশেষ নেগেটিভ চিহ্নিত একটি সংকেত দিয়ে রাখে তখন ওই লিংকটি নো-ফলো হিসেবে ওয়েবে বিবেচিত হয় এবং ওই ব্যাক লিংক থেকে উক্ত ওয়েবসাইট কোন বেনিফিট পায়না। কিন্তু তারপরও নো-ফলো ব্যাকলিংক প্রয়োজন আছে যা এই পোষ্টের নিচের অংশে বলা হবে। তাই, ধৈর্য সহকারে সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়তে হবে তাহলে আমরা মূল বিষয় সম্পর্কে জানতে ও শিখতে পারবো।

মূল সারমর্ম-

আপনি কি জানেন ডু-ফলো আর নো-ফলো ব্যাকলিংক কাকে বলে

একটি উদাহরণের মাধ্যমে আমরা এই বিষয়টাকে আরো পরিস্কার করি।  ধরুন- আপনার একটি ঔষধের দোকান আছে। এই ওষুধের দোকানের প্রচার-প্রচারণা করার জন্য আপনি 100 টা পুরাতন  ঔষধের দোকান নির্বাচন করলেন এবং সেই সমস্ত দোকানের দেওয়ালে বা দোকানের মধ্যে কিছু পোস্টারিং করবেন। এখন আপনি প্রত্যেক ওষুধের দোকানে গেলেন এবং দোকান মালিক কে বললেন- ভাই আমি সবেমাত্র ওষুধের ব্যবসা শুরু করেছি তাই প্রচার-প্রচারণার জন্য আপনার  সহযোগিতা কামনা করছি এবং আমি একটি ব্যানার দিতে চাই যেন সবাই জানে আমার একটি দোকান আছে। যদি এই বিষয়টা ঔষধের দোকান মালিক ভালোভাবে নিয়ে আপনার ব্যানারটি সে দোকানের দেয়ালে বা তার দোকানের আশেপাশে কোথাও রাখতে দেয় তাহলেই মনে করেন যে আপনি তার থেকে একটি সাপোর্ট পেলেন এবং এটাই আপনার জন্য অনলাইনের ভাষায় ডু-ফলো ব্যাকলিংক হিসেবে বিবেচিত হলো।  

আর আপনার কথা শুনে যদি দোকান মালিক ব্যানার রাখার ক্ষেত্রে তেমন একটা আগ্রহ প্রকাশ করলো না এমনকি রাখার অনুমতি দিল না তারপরও আপনি নিজ ইচ্ছায় ব্যানারটি তার দোকানের আশেপাশেই রাখলেন তখন দোকান মালিকের যে মনোভাব তৈরি হল এটাই আপনার ব্যবসার জন্য খারাপ হয়ে গেল।  যা থেকে আপনি তো কোন উপকার পেলেন না বরং কোন একটি কাস্টমার আপনার ব্যানারটি দেখে দোকান মালিকের কাছে জিজ্ঞেস করলে দোকান মালিক আপনার সম্পর্কে আরো খারাপ মন্তব্য করে দিল যা আপনার ব্যবসার বারোটা বাজলো আর এটাই মূলত অনলাইন মার্কেটিং এর ভাষায় বা অনলাইন ব্যাকলিঙ্ক ক্রিয়েট করার ভাষায় নো-ফলো ব্যাকলিংক হিসাবে বিবেচিত হল-

পর্যালোচনাঃ

এক বছর পর আপনি যখন ব্যবসায়িক বেনিফিট পর্যালোচনা করলেন তখন দেখলেন যে, আপনি যে একশোটা ওষুধ ব্যবসায়ী দোকানে আপনার ব্যানারটি সংযোজন করেছিলেন সেগুলো থেকে মাত্র 40-50 টা ওষুধ দোকান থেকে উপকার পাচ্ছেন আর 50-60 টা দোকান থেকে উপকরণ পাচ্ছেন না বরং তাদের কাছ থেকে আপনার ব্যবসায়িক সুনাম ক্ষুন্ন হচ্ছে।  এর কারণ কি আপনি কি বলতে পারবেন? কারণ হচ্ছে এটাই- আপনি প্রাথমিকভাবে 100 টি ওষুধের দোকান নির্বাচন করলেন এবং সব দোকানে আপনার প্রচারণার জন্য ব্যানার সংযোজন করলেন তারপরও মাত্র 40 টা দোকান থেকে আপনি সুনাম অর্জন করলেন আর বাকি 60 টা দোকান থেকে বদনাম অর্জন করলেন। কারণ প্রথমে যখন আপনি তাদের কাছে গিয়েছিলেন তখন ওই 60 জনের সার্টিফাই আপনার দোকানের জন্য ছিল না এই বিষয়টা আপনি তখন বুঝতে পারেননি যার কারণে আপনার এক বছরের মধ্যে  ব্যবসার অনেক ক্ষতি হলো। 

তাই, ব্যাকলিংক ক্রিয়েশন করার ক্ষেত্রে 100 টা করার চেয়ে 50 টা করাও ভালো যদি সেটা কোয়ালিফাই ব্যাকলিংক হয়।  সেজন্য এই বিষয় সম্পর্কে আমাদের আগে সচেতন হতে হবে তারপর এসইও -এর ডুফলো ও নোফলো পার্টটি ভালোভাবে সম্পন্ন করার পরেই আমরা এখান থেকে বেনিফিটেড হতে পারি-

অনলাইন মার্কেটিং করার ক্ষেত্রে "অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং" খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটা পাঠ যেখানে লিংক বিল্ডিং করার ক্ষেত্রে ডু-ফলো এবং নো-ফলো দুই বিষয়টিকেই গুরুত্ব দিতে হয় তাই এই মার্কেটিং সম্পর্কে আমরা একটু জেনে আসি তাহলে এখান থেকে ভালো একটি ধারণা পাব-

 শেষ করি আর একটি কথা দিয়ে-

 আমরা কি তাহলে মনে করছি যে যেকোনো ওয়েবসাইটের জন্য শুধুমাত্র ডুফলো ব্যাকলিংক প্রয়োজন? আসলে বিষয়টা মটেও এমন না! তাহলে কি নোফলো ব্যাকলিংক -এর প্রয়োজন আছে? এই বিষয়টা অনলাইন মার্কেট এর মধ্যে ভিন্ন ভিন্ন জন ভিন্ন ভিন্ন মতামত প্রকাশ করছে।  আমার মতে প্রত্যেকটা মানুষ আলোচিত সমালোচিত হতে পারে এটা তার কোন নেগেটিভ বিষয় না। তাই, গুগোল যে শুধু ডুফলো লিঙ্গ কাউন্ট করে এমনটা নয়। গুগোল নোফলো ব্যাকলিংক কাউন্ট না করলেও এই বিষয়টা সেভ হলো ঘরে। একটা মানুষ যত ভালই হোক বারবার সবাই যখন তাকে ভাল বলতে বলতে অস্থির হয়ে যায় তখনই মানুষের মাঝে নানা প্রশ্ন থাকে যে আসলে কি ওই মানুষটি ভালো? ঠিক বিষয়টা এমন যেটা আমাদের ব্যক্তিগত জীবনের সাথে মেলানো যায়।  তাই কোথাও থেকে যদি আমরা দুই একটা শতকরা 20/30 টা নো-ফলো ব্যাকলিংক পেয়ে থাকি তবুও আমি মনে করি এটা তেমন সমস্যা না। আপনি মনে রাখবেন- আপনাকে যে সাপোর্ট বা সার্টিফাই করছে সেই ব্যক্তিটি কেমন? ওই ব্যক্তিকে যদি খারাপ হয়ে থাকে তাহলে তার বদনামে আপনার কিছু আসে যায় না। অর্থাৎ কোন খারাপ ব্যক্তি যদি কোন ভালো ব্যক্তি কে দুর্নাম করে তবে মানুষ এটা দুর্নাম না ভেবে সুনাম ভাবে কারণ- খারাপ মানুষ সাধারণত সুনাম করতে জানেনা। এজন্যই, ব্যাক লিঙ্ক ক্রিয়েট করার ক্ষেত্রে নো-ফলো  ব্যাকলিংক এর প্রয়োজন আছে। আমরা বাঙালি তাই বাংলাতে আমাদের অনেক সংজ্ঞা আছে। আমরা একটি সংজ্ঞা বলে শেষ করি- যে, চাঁদেরও কলঙ্ক আছে। 

ধন্যবাদ, এতক্ষণ সাথে থাকার জন্য



2 Comments

Nazmul · April 6, 2020 at 2:57 pm

ধন্যবাদ এত ভালো মতামত প্রকাশের জন্য

    mizan_skill · April 6, 2020 at 7:47 pm

    Thanks

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *